অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা কত টাকা লাগে ২০২৪

বৈধ ভাবে এক দেশ থেকে অন্য দেশে যেতে ভিসা প্রয়োজন এই ভিসা দিয়ে অন্য দেশে চাকরি,  পড়াশুনা, ভ্রমণ ও বসবাস করা যায়। তবে প্রতি প্রবাসী বিদেশ যায় কাজের জন্য। কাজ করতে অস্ট্রেলিয়া যেতে অবশ্যই জব ভিসা বানাতে হবে। এই জব ভিসার মূল্য লাখ লাক্লহ টাকা। এছাড়া ভিসার ধরন ও কাজের উপর নির্ভর করে একটি ভিসার দাম কত হতে পারে। আজকে অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা কত টাকা লাগে তা জানবো।

ভিসার ক্ষেত্রে অনেক গুলো ক্যাটাগরি আছে। যেমনঃ জন ভিসা, বিজনেস ভিসা, কোম্পানি ভিসা, সিজনাল ভিসা, নন সিজনাল ভিসা, কোম্পানি ভিসা ইত্যাদি। এই প্রতিটি ভিসার মূল্য আলাদা আলাদা। যার ফলে এক ভিসার সাথে অন্য ভিসার খরচের মিল নেই। তবে যেকোনো কাজে অস্ট্রেলিয়া যেতে কত টাকা লাগবে তার সম্পূর্ণ ধারনা পাবেন এখান থেকে।

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা কত টাকা লাগে

চাইলেই যে কেউ অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পায় না। এজন্য নির্দেশনা দেওয়া থাকে। এই নির্দেশনা পূর্ণ করে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। অস্ট্রেলিয়ায় অনেক ধরনের কাজ পাওয়া যায়। এই কাজে ভিসা বানিয়ে যুক্ত হতে পারবেন। অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা বানাতে ৭ লাখ থেকে ১২ লাখ টাকা লাগে। সাধারণ মানের কাজের জন্য ৮ লাখ টাকায় ভিসা পাওয়া যাবে। অস্ট্রেলিয়ার ভালো কোনো কোম্পানির চাকরি করতে ১০ থেকে ১৩ লাখ টাকা দিয়ে ভিসা বানাতে হবে।

এর মধ্যে কম্পিউটার অপারেটর, প্রোগ্রামার, সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার, ওয়েব প্রোগ্রামার, ইলেক্ট্রিশিয়ান ও ইলেকট্রিকাল এবং মেকানিকাল। এছাড়া পোশাক কারখানা, টেক্সট টাইল মিল এবং বিভিন্ন কোম্পানিতে লাখ লাখ টাকার বেতন পেতে এই সকল চাকরি নিতে হবে। এই কাজের জন্য ভিসা পেতে পড়াশুনা জানা থাকতে হবে। ভিসার আবেদনের সময় শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট ও ডকুমেন্ট লাগবে। তাহলে ভিসার আবেদন করে চাকরি পাওয়া যাবে। এই সকল ভিসা পেতে ১২ থেকে ১৪ লাখ টাকা খরচ হবে।

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা ২০২৪ কত টাকা লাগে

২০২৪ সালে নতুন নতুন কাজের নিয়োগ দেওয়া হবে। অনেক কোম্পানি থেকে বাংলাদেশে ভিসার বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। ডলারের রেট বৃদ্ধি পাওয়ায় এখনো ভিসা দাম কিছুটা বেড়েছে। কৃষিকাজ, লেভারের কাজ, ক্লিনার বা শ্রমিকের কাজের জন্য কম দামে কাজ এর ভিসা বানাতে পারবেন। এই সকল ভিসা পেতে ৬ থেকে ৮ লাখ টাকা লাগে। রাঁধুনি, ক্লিনার, ফ্যাক্টরি কাজ পেতে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা দিয়ে ভিসা বানাতে হবে। কাজের কুয়ালিটির উপর নির্ভর করে অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা ২০২৪ ৭ থেকে ১৪ লাখ টাকা লাগে।

শেষ কথা

নতুন নতুন বছরে আরও কাজের সুযোগ বাড়বে এবং নতুন নতুন কাজের ভিসা পাওয়া যাবে। এই সকল ভিসার দাম এর থেকে কম বা বেশি হতে পারে। এছাড়া ভিসা এজেন্সির উপরও অনেকটা ভিসা খরচ নির্ভর করে। তাই এখানে কাজে আসার পূর্বে অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা কত টাকা লাগে তা জেনে নিবেন। এরপর এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করবেন।

আরও দেখুনঃ

২০২৪ সালে সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু কবে

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা খরচ ২০২৪

অস্ট্রেলিয়া যেতে কত টাকা লাগে ২০২৪